ছোটদের মনের মত ওয়েব পত্রিকা

কয়েকদিন পরেই পয়লা বৈশাখ,
তাই মার্কেটিং-এ হাজির মানুষ লাখ লাখ!
কিন্তু ....
চৈত্রসেলে এবার হাজির গণেশ ঠাকুর নিজে
দোকান দেখে অবাক তিনি কেনেন কত কি যে!
প্রথমে যান গড়িয়াহাটে কিনতে প্যান্ট ও শার্ট,
বোনেদের জন্য কিনলেন তিনি চারটি সুন্দর স্কার্ট।
গেলেন তিনি বাটাতে কিনতে জুতো জোড়া --
কার্তিকের জন্য নিলেন তিনি ডেনিম ও চশমা
তারপর তিনি চলে আসেন ঢাকেশ্বরী বস্ত্রালয়,
কেনেন মায়ের জন্য সুন্দর শাড়ি গোটা ছয়।
বেশি দামে কিনতে তিনি পেলেন না কোন ‘রীজন্’
কারণ তিনি জানেন এখন চৈত্রসেলের ‘সীজেন্’।
খেতে রোজ রোজ মাংস আর বিরিয়ানী,
বললেন, ‘‘যাই মার জন্য মাইক্রোওভেন আর কুকার কিনে আনি!’’
তখনই তাঁর ইদুর বলল, ‘‘মহাদেবের জন্য কিনতে হবে শেরওয়ানী,’’
গণেশ বললেন, ‘‘আরে বোকা আমি জানি’’
তাঁর চারটি হাতে ব্যাগ যখন ভরে উঠল,
‘‘উফ! এবার কেনাকাটা শেষ হল;’’
এইবার সকলকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে,
তিনি ধরলেন একটা বিরাট ভলভো বাস -
চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে ফিরে গেলেন কৈলাস॥

লেখক পরিচিতি

দীপায়ন সরকার

দীপায়ন সরকার

দীপায়ন কলকাতার নব নালন্দা হাই স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্র। দীপায়ন শুধু ভাল ছবি আঁকে না, কবিতা আর গল্পও লেখে। গল্পের বই পড়তে ভালবাসে। বড় হয়ে চিত্রকর অথবা অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ার হতে চায় দীপায়ন। বেশ কিছুদিন ধরে ইচ্ছামতীর পাতায় নানাধরণের গল্পের সাথে দারুণ সব ছবি আঁকছে দীপায়ন।
নয় পেরিয়ে দশে পা
undefined

আরো পড়তে পার...

ফেসবুকে ইচ্ছামতীর বন্ধুরা