ছোটদের মনের মত ওয়েব পত্রিকা

শূন্যস্থান পূরণ

শূন্যস্থান পূরণ
(১)

ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছে কুপ্ওয়ারা নাম –টা বহুদিন ধরেই একটা মাথাব্যথা বিশেষ। এটা হলো জম্মু -কাশ্মীর রাজ্যের একটা জেলা যার অনেকখানি জায়গা দিয়ে ভার...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

নিখিলেশবাবু ও খিকখিক ভূত

নিখিলেশবাবু ও খিকখিক ভূত

নিখিলেশবাবুর বাড়িটা ভীষণ পুরনো। তার ঠাকুরদাদার বাবার আমলের বাড়ি। এ বাড়িটা এখনো কেমন করে ধুঁকতে ধুঁকতে বেঁচে আছে, সেটাই এক রহস্য। শুধু যে বেঁচে আছে তাই নয়, ন...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

ষাঁড়ের বাড়ি

ষাঁড়ের বাড়ি

শীত পড়তে আর বেশী দেরী নেই। একটি ষাঁড় একদিন খবর পেল, এবার ভীষণ শীত আসবে তাদের সবুজ রঙা বনে। সাদা বরফের চাদরে ঢেকে যাবে বনভূমি। ষাঁড় খুব চিন্তায় পড়লো। এবারকার...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

চানু পিসি আর মানু পিসি

চানু পিসি আর মানু পিসি

চানু পিসি থাকেন ধানবাদে আর মানু পিসি থাকেন বোকারোতে। দুজনেই ভীষণ ঝগড়ুটে। চানুপিসি বাপের বাড়ি আসানসোলে পা রাখতে না রাখতেই মানু পিসি সে খবর পেয়ে যান। আর খবরটা পেতেই ব‍্যাগ-পত্তর নিয়ে ঝড়ের বেগে তিনিও আসানসোলে চানুপিসির কাছে হাজির ।

প্রথমে দুজনে দু-তিন মিনিট সময় নেন কুশল বিনিময়ের জন্য। আর তারপরেই শুরু হয় ঝগ়ড়া।

চানু পিসি বলে্ন, ‍" তোর বাতের ব্যথা কেমন আছে ?"
মানু পিসি বলেন, "সে আছে একরকম। কিন্তু তোর মাথা ধরে যাওয়া বদ রোগটা সেরেছে ?"

চানু পিসি এবার জর্দা দেওয়া পান মুখে পুরে হাঁক পাড়ে, "ওরে জগু, (জগু আমার বাবার নাম, ভালো নাম জগদীশ) বলি তোর কাণ্ডটা একবার দেখ দেখি। সেই কোন সকালে ট্রেনে চেপেছি। অথচ একবারটি ফোন করে খবর নিয়েছিস ?"
বাবা তাঁর বোনকে হাড়ে হাড়ে চেনেন। তাই মুখে হ্যাঁ বা না কিছুই বললেন না। কারণ হ্যাঁ বললেও চানু পিসি তাঁকে ছাড়বেন না আর না বললেও না। তাই বাবা এবার মা কে ডাক পাড়েন, "কই গো, মানু-চানুর জন্য চা বানালে ?"

চানু পিসি ঝগড়া শুরু করার একটা মোক্ষম সুযোগ পেয়েও সেটাকে কাজে লাগাতে পারলেন না বলে কিছুটা দমে গেলেন। তবে তিনি এবার মানুপিসিকে নিয়ে পড়লেন।
মানু পিসি চানু পিসির চেয়ে ছোট। তবে তাঁর ভাবখানা এমনই যে মনে হয় তিনিই এ বাড়ির সবচেয়ে বড়। তিনি যখন তখন বাবাকে-মাকে ঝুড়ি ঝুড়ি উপদেশ দেন। পৃথিবীর সব বিষয়েই মানু পিসির অগাধ জ্ঞান। তো চানুপিসির সাথে দেখা হওয়ার দু-মিনিট একান্ন সেকেণ্ড পার হয়ে গেছে অথচ এখনো প্রথম পর্বের ঝগড়া-ঝাঁটি শুরুই হল না বলে আমরা ছোটরা বেশ নিরাশ হলাম।

কিন্তু না ! আমাদের আশা বিফলে গেল না। তিন মিনিট হতে আর দু-সেকেণ্ড যখন বাকি সেসময় ও ঘর থেকে চানু পিসি বললেন, "মানুটার কাণ্ড দেখ দেখি। আমাকে বলে কিনা তার দেওয়ের ছেলের সঙ্গে আমি নাকি কথা বলিনি। আমার নামে এরকম অপবাদ দেওয়ার আগে নিজে চৌদ্দবার ভেবে নিবি। চানু সেরকম বিদ্যে –বুদ্ধি নিয়ে জন্মায় নি। সে একবার যাকে দেখে তাকে দশ বছর পরেও চিনতে পারে। কিন্তু তোর দেওরের ছেলের কাণ্ড শুনলে হাসি পায়। আমাকে বলে কিনা আন্টি ! আমার এতই বয়স হয়ে গেল যে আন্টি বলে ডাকতে হবে ?"
মানু পিসি আর বসে থাকবার মহিলা নয়। তিনি একেবারে রণং দেহি হয়ে চানুর মুখোমুখি সম্মুখ সমরে অবতীর্ন হলেন।
বললেন, "তা ঐ দুধের শিশু ছেলেটার পেটে কি অত বুদ্ধি আছে ?"

আমরা ছোটরা এতক্ষণ পরে চিন্তা মুক্ত হলাম। একে একে ঝগড়া শুনতে ডাইনিং-এ এসে জড়ো হলাম। ওদিকে মা-বাবা এই ঝগড়ার মাঝে এসে কোন হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করলেন না। মা একসময় ধোঁয়া ওঠা দু-কাপ চা দুই পিসির হাতে ধরিয়ে দিতেই বাবা হা – হা করে ছুটে এলেন।

আসলে পিসিমণিরা যখন ঝগড়ার একেবারে শেষে এসে পৌঁছা্ন ঠিক তখনই হাতের গেলাস কিংবা কাপ মেঝেতে ছুড়ে রণে ভঙ্গ দেন। আর এটা বাবা খুব ভালো ভাবেই জানে্ন বলে এভাবে ছুটে এসেছেন। বাবা ডাইনিং-এ এসে আমাদের একপাশে সরিয়ে দিলেন, কেননা গরম চা ছিটকে এসে আমাদের গায়েও লাগতে পারে।

চানু পিসি চায়ে চুমুক দিয়ে গলাটা একটু ভিজিয়ে নিতে চাইলেন। কিন্তু এক চুমুক দিয়েই তাঁর কথা বন্ধ হয়ে গেল। ওদিকে মানুপিসিও সুড়ুৎ করে গরম চা জিভ দিয়ে টেনে স্বাদ নিতে গেলেন আর অমনি মিইয়ে গেলেন।

ঝগড়ার শেষ পর্বে এসে কাপ ভেঙ্গে ফেলার বদলে দু-জনেই মনোবল হারিয়ে ফেলল কেন ?- আমরা অবাক হয়ে ভাবতে লাগলাম।

কারণটা বোঝা গেল একটু পরেই। চানু পিসি বলে উঠলেন, "দেশ...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

ঊদেয়ার রাজাদের দেশ - মহিশূর-পর্ব ৯

ঊদেয়ার রাজাদের দেশ - মহিশূর-পর্ব ৯

মাইসোর প্যালেসের চত্বরে ঢোকার একটি প্রধান দরজা আছে, যাকে বলে সিংহদ্বার। আসলে, প্যালেস চত্বর ঘিরে চারদিকে এক প্রশস্ত প্রাচীর। তার বাইরে নাকি এককালে পরিখা কাট...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

হানুকা উৎসবের কথা

হানুকা উৎসবের কথা

২৫শে ডিসেম্বর কোন উৎসব জিজ্ঞাসা করলে ছেলে বুড়ো সবাই লাফিয়ে উঠে বলি সেদিন তো বড়দিন। তার আগের দিন রাতে সান্তাবুড়ো এসে ছোটদের উপহার রেখে যান। পরের দিন আমরা কেক...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

ফেসবুকে ইচ্ছামতীর বন্ধুরা