ছোটদের মনের মত ওয়েব পত্রিকা

টিনটিন আর স্যান্টা ক্লজ

টিনটিন আর স্যান্টা ক্লজ

তক্কে তক্কে ছিল টিনটিন। ঘুমের ভান করে পড়ে। বুড়ো পেছন ঘুরতেই লাফিয়ে উঠে বুড়োর কাঁধ থেকে ঝুলে পড়ল। "কেন, আমায় বাজে গিফ্ট দিয়েছো? এসব পাজল টাজল তো মা বাবাই কিন...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 05 April 2018

ছিন্ন বীণা

ছিন্ন বীণা

বিতানদের ফ্ল্যাটটা টবিন্‌ রোড থেকে একটু ভিতরের দিকে। থ্রি বেডরুম অ্যাপার্টমেন্ট। বুক করার সময় থেকেই অ্যাটাচ্‌ড্‌ বাথরুম আর ব্যালকনি সমেত ঘরটা বিতান দখল কর...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 05 April 2018

নিখিলেশবাবু ও খিকখিক ভূত

নিখিলেশবাবু ও খিকখিক ভূত

নিখিলেশবাবুর বাড়িটা ভীষণ পুরনো। তার ঠাকুরদাদার বাবার আমলের বাড়ি। এ বাড়িটা এখনো কেমন করে ধুঁকতে ধুঁকতে বেঁচে আছে, সেটাই এক রহস্য। শুধু যে বেঁচে আছে তাই নয়, ন...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

চানু পিসি আর মানু পিসি

চানু পিসি আর মানু পিসি

চানু পিসি থাকেন ধানবাদে আর মানু পিসি থাকেন বোকারোতে। দুজনেই ভীষণ ঝগড়ুটে। চানুপিসি বাপের বাড়ি আসানসোলে পা রাখতে না রাখতেই মানু পিসি সে খবর পেয়ে যান। আর খবরটা পেতেই ব‍্যাগ-পত্তর নিয়ে ঝড়ের বেগে তিনিও আসানসোলে চানুপিসির কাছে হাজির ।

প্রথমে দুজনে দু-তিন মিনিট সময় নেন কুশল বিনিময়ের জন্য। আর তারপরেই শুরু হয় ঝগ়ড়া।

চানু পিসি বলে্ন, ‍" তোর বাতের ব্যথা কেমন আছে ?"
মানু পিসি বলেন, "সে আছে একরকম। কিন্তু তোর মাথা ধরে যাওয়া বদ রোগটা সেরেছে ?"

চানু পিসি এবার জর্দা দেওয়া পান মুখে পুরে হাঁক পাড়ে, "ওরে জগু, (জগু আমার বাবার নাম, ভালো নাম জগদীশ) বলি তোর কাণ্ডটা একবার দেখ দেখি। সেই কোন সকালে ট্রেনে চেপেছি। অথচ একবারটি ফোন করে খবর নিয়েছিস ?"
বাবা তাঁর বোনকে হাড়ে হাড়ে চেনেন। তাই মুখে হ্যাঁ বা না কিছুই বললেন না। কারণ হ্যাঁ বললেও চানু পিসি তাঁকে ছাড়বেন না আর না বললেও না। তাই বাবা এবার মা কে ডাক পাড়েন, "কই গো, মানু-চানুর জন্য চা বানালে ?"

চানু পিসি ঝগড়া শুরু করার একটা মোক্ষম সুযোগ পেয়েও সেটাকে কাজে লাগাতে পারলেন না বলে কিছুটা দমে গেলেন। তবে তিনি এবার মানুপিসিকে নিয়ে পড়লেন।
মানু পিসি চানু পিসির চেয়ে ছোট। তবে তাঁর ভাবখানা এমনই যে মনে হয় তিনিই এ বাড়ির সবচেয়ে বড়। তিনি যখন তখন বাবাকে-মাকে ঝুড়ি ঝুড়ি উপদেশ দেন। পৃথিবীর সব বিষয়েই মানু পিসির অগাধ জ্ঞান। তো চানুপিসির সাথে দেখা হওয়ার দু-মিনিট একান্ন সেকেণ্ড পার হয়ে গেছে অথচ এখনো প্রথম পর্বের ঝগড়া-ঝাঁটি শুরুই হল না বলে আমরা ছোটরা বেশ নিরাশ হলাম।

কিন্তু না ! আমাদের আশা বিফলে গেল না। তিন মিনিট হতে আর দু-সেকেণ্ড যখন বাকি সেসময় ও ঘর থেকে চানু পিসি বললেন, "মানুটার কাণ্ড দেখ দেখি। আমাকে বলে কিনা তার দেওয়ের ছেলের সঙ্গে আমি নাকি কথা বলিনি। আমার নামে এরকম অপবাদ দেওয়ার আগে নিজে চৌদ্দবার ভেবে নিবি। চানু সেরকম বিদ্যে –বুদ্ধি নিয়ে জন্মায় নি। সে একবার যাকে দেখে তাকে দশ বছর পরেও চিনতে পারে। কিন্তু তোর দেওরের ছেলের কাণ্ড শুনলে হাসি পায়। আমাকে বলে কিনা আন্টি ! আমার এতই বয়স হয়ে গেল যে আন্টি বলে ডাকতে হবে ?"
মানু পিসি আর বসে থাকবার মহিলা নয়। তিনি একেবারে রণং দেহি হয়ে চানুর মুখোমুখি সম্মুখ সমরে অবতীর্ন হলেন।
বললেন, "তা ঐ দুধের শিশু ছেলেটার পেটে কি অত বুদ্ধি আছে ?"

আমরা ছোটরা এতক্ষণ পরে চিন্তা মুক্ত হলাম। একে একে ঝগড়া শুনতে ডাইনিং-এ এসে জড়ো হলাম। ওদিকে মা-বাবা এই ঝগড়ার মাঝে এসে কোন হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করলেন না। মা একসময় ধোঁয়া ওঠা দু-কাপ চা দুই পিসির হাতে ধরিয়ে দিতেই বাবা হা – হা করে ছুটে এলেন।

আসলে পিসিমণিরা যখন ঝগড়ার একেবারে শেষে এসে পৌঁছা্ন ঠিক তখনই হাতের গেলাস কিংবা কাপ মেঝেতে ছুড়ে রণে ভঙ্গ দেন। আর এটা বাবা খুব ভালো ভাবেই জানে্ন বলে এভাবে ছুটে এসেছেন। বাবা ডাইনিং-এ এসে আমাদের একপাশে সরিয়ে দিলেন, কেননা গরম চা ছিটকে এসে আমাদের গায়েও লাগতে পারে।

চানু পিসি চায়ে চুমুক দিয়ে গলাটা একটু ভিজিয়ে নিতে চাইলেন। কিন্তু এক চুমুক দিয়েই তাঁর কথা বন্ধ হয়ে গেল। ওদিকে মানুপিসিও সুড়ুৎ করে গরম চা জিভ দিয়ে টেনে স্বাদ নিতে গেলেন আর অমনি মিইয়ে গেলেন।

ঝগড়ার শেষ পর্বে এসে কাপ ভেঙ্গে ফেলার বদলে দু-জনেই মনোবল হারিয়ে ফেলল কেন ?- আমরা অবাক হয়ে ভাবতে লাগলাম।

কারণটা বোঝা গেল একটু পরেই। চানু পিসি বলে উঠলেন, "দেশ...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 16 December 2017

টিফিন টাইম আর ভ্যানিশিং ইঙ্কের গল্প

 টিফিন টাইম আর ভ্যানিশিং ইঙ্কের গল্প

পটল ওরফে অর্চি ওরফে অর্চিষ্মান বাবু একজন ভাল মানুষ ।
তাকে যতই না কেন সবাই ;উফফ কী দুষ্টু , দুরন্ত দস্যি একেবারে,হতভাগা পাজি বাঁদর ইত্যাদি বিশেষণের মার্...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

গুবলুর গোয়েন্দাগিরি

গুবলুর গোয়েন্দাগিরি

ঘুমটা ভাঙতেই তড়াক করে উঠলে বসলো গুবলু। দেরি হয়ে গেলো নাকি? ঘড়িটা আবার গেলো কোথায়? হাতড়ে হাতড়ে অ্যালার্ম ক্লকটা পেলো পায়ের পাশে। ঘুমের ঘোরে হাত ছোঁড়ার চোটে ম...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

বাড়ি ফেরার পর

 বাড়ি ফেরার পর

আমি মারা গেছি। এই ঘন্টা খানেক আগে। বাস দুর্ঘটনায়। স্কুল বাসে বাড়ি ফিরছিলাম। ড্রাইভারের কী হয়েছিল জানি না, তবে দেখলাম বাসটা গড়িয়ে পড়ল রাস্তার ধারের খাদে। তার...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

আবার নলে

 আবার নলে

"আজকে আর ফুলদাদুকে ছাড়া যাবে না। নলে মানে আমাদের অতি বৃদ্ধ পিতামহের একটা গল্প শুনতেই হবে। ফুলদাদুই তো বলেছিলেন ওনার জীবনে নাকি অনেক কাণ্ডকারখানা আছে, মনে নে...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

ময়ূরপুচ্ছ বেড়াল

   ময়ূরপুচ্ছ বেড়াল

পিকুদের পোষা বেড়াল পুষিটা খুব পাজি। সারাক্ষণ বাড়ির পেছনের বাগানে পাখি ধরার মতলবে ঘোরে। তবে পাখিরা তাকে বিলক্ষণ চেনে, তাই দেখলেই উড়ে পালায়। পুষি যেখানেই লুকি...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

ভাইফোঁটা

   ভাইফোঁটা

জানলার পাশটাতে মুখ ভার করে বসে আছে অরিত্র। কাল সবে কালীপুজো গেছে। তাই এখনও চারিদিকে বাজির শব্দ পাওয়া যাচ্ছে। অরিত্রর বাড়িতেও অনেক বাজি পড়ে আছে। কাল সব বাজি ...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

রুমকি আর মিনি

   রুমকি আর মিনি

আজ মহাষষ্ঠী। ঢাকের আওয়াজ শুনে মিনির ঘুম ভেঙে গেল। কি মজা। দুর্গাপুজো শুরু হয়ে গেল। কত আনন্দ হবে। মিনির বাড়ির কাছেই পুজো প্যান্ডেল। একটু পরেই মিনির সব বন্ধু ...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

আমাদের পুজো

আমাদের পুজো

ঢাকের বাদ্যিটা ক্রমশ এগিয়ে আসছে এইদিকে। আমি, ফুলি, টুসু - আমরা সবাই এই বটগাছের নিচে দাঁড়িয়ে আছি। জমিদার বাড়ির লোকজনের ঠাকুর আনতে যাচ্ছে। দুর্গা ঠাকুর - ওই ক...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

যন্ত্রের জঙ্গলে

যন্ত্রের জঙ্গলে

বাবলা স্কুল থেকে ফিরে লাটাই - ঘুড়ি হাতে দৌড় দিল দক্ষিণের মাঠে । অমনি কালুয়াও ওকে অনুসরণ করতে থাকল । সবুজ আলবাঁধ ধরে এগিয়ে হোগলা জঙ্গলের পাশ দিয়ে, বড় ঝিলের প...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

উলের গল্প

উলের

ক্লেমেন্তিনা দিদিমার উল বুনতে দারুণ ভাল লাগত। এমনকি আলেলি ভিলার সব শীতকাতুরে মানুষজনের জন্য মোটা মোটা মাফলার বুনে দিত। ঝলমলে সুতো দিয়ে, পরীদের জন্য নরম সুতো...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

টিনুর অ্যাডভেঞ্চার

টিনুর অ্যাডভেঞ্চার

অভিমানে চোখে জল এল টিনুর। রুনাদি তাকে চিনতেই পারল না। সে যে সুটকেসে চড়ে, নিজের প্রাণ বাজী রেখে এতদূর পাড়ি দিল, নিজের ফ্যামিলির সঙ্গে মাইসোর, ঊটি ঘুরবে বলে, ...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

গুপ্তধন খোঁজার প্রতিযোগিতা

গুপ্তধন খোঁজার প্রতিযোগিতা

"এই বিহু, ক্লাবহাউসের বাইরে লাগানো পোস্টারটা দেখেছিস?" বিহান এসে তার যমজ বোন বিহুকে জিজ্ঞেস করল।
"না দেখা হয়নি। কী লিখেছে? তাড়াতাড়ি বল। বাবা বাজার থেক...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

কোপ্তা – কাবাব

কোপ্তা – কাবাব

কোপ্তা মাসি আর কাবাব মাসি দুই বোন । দুজনেই ইস্কুলের মাষ্টারনি । বিদ্যাবিনোদ বালিকা বিদ্যালয়ে দুজনেই পড়ান । কোপ্তা মাসি অঙ্ক করান আর কাবাব মাসি সেলাই দিদিমনি...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

ভূত আর মেজদা

ভূত আর মেজদা

আবার একটা রবিবারের আসর। প্রতিমাসের শেষ রবিবার আমরা ভাই-বোনেরা জড়ো হই মেজদার ঘরে। মেজদা আমাদের নিজের অভিজ্ঞতার গল্প বলে। বহুকষ্ট করার পর মেজদা এই গল্পগুলো বল...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

হারুণ

হারুণ

ডান হাতে জলভরা একটা বালতি। মুখ ভিজে গামছায় ঢাকা। অন্য হাতে মগ আর গোটা দুই গ্লাস। কলকাতায় বড় ক্লাবের ফুটবল শুরু হলেই চম্পাহাটির হারুণ ময়দানে জল বেচতে শুরু কর...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

মিতুল আর জঙ্গুলেরা

মিতুল আর জঙ্গুলেরা

মিতুলের আজ খুব মজা, বাবা আসবে। বাবা অনেক দূরে চাকরী করে, কতদিন পরে পরে আসে – একটুও ভালো লাগে না মিতুলের। আর মা’রও কি ভালো লাগে? খালি বলে – একা আমি আর কত দিক...

আরো পড়:
প্রকাশিত: 19 October 2017

undefined

ফেসবুকে ইচ্ছামতীর বন্ধুরা