খেলাঘরখেলাঘর

 সকুট

 

আমি আজ একটি ইরানের চলচ্চিত্র নিয়ে লিখব। সিনেমার নাম “সকূট” যার মানে নিরবতা। সিনেমার পরিচালকের নাম মোহসিন মাখমালবাফ। এটি একটি ১০ বছরের ছেলের গল্প। ছেলেটি তাজাকিস্তানে তার মার সাথে থাকে ।যদিও সে চোখে দেখতে পায় না কিন্তু কানে শুনতে পারে। এর নাম খুরশীদ । খুরশীদের এক অদ্ভূত ক্ষমতা ছিল। সে গান খূব ভাল বাসতো আর সুর শুনে বাদ্য যন্ত্র ঠিক করতে পারতো। সে খুবই গরীব ছিল।বাড়ি ভাড়ার টাকা যোগার করার যন্য তাকে এক বাদ্য যন্ত্রের দোকানে কাজ করতে যেতে হয়। বাড়ির ভাড়া বাকি থাকায় তাকে চাকড়ি নিতে হয়।

সকুট

রোজই কাজে পৌঁছাতে তার দেরী হয়ে যায় কারণ সে আসে পাসের ফকির বা যাযাবরদের গান শুনতে শুনতে তাদের সঙ্গে পথ চলতে শুরু করে আর সময়মতো দোকানে পৌঁছাতে পারে না। দোকানে খুরশীদের নাদিরা বলে একটি ছোট্ট মেয়ের সঙ্গে দেখা হয় যে খুরশীদের খুব ভাল বন্ধু হয়ে ওঠে।

 সকুট

খুরশীদ রাস্তা হারিয়ে ফেল্লে সেই রোজ খুঁজে নিয়ে আসে।  শেষে তার চাকরি চলে যায়। কিন্ত্তু সে নিজের মনে বিথোভেন এর ৫-ম সিম্ফনি শুনতে পায়। তার গানই তার মনকে রাঙ্গিয়ে রাখে।

সকুট

সিনেমায়  দুই ছোট্টচছেলে-মেয়ের অভিনয় দক্ষতা প্রশংষার যোগ্য । ক্যমেরার কাজ ও সুন্দর। গানের ব্যবহারও মানানসই। আমার প্রথম দেখায় ভাল লাগার মধ্যে একটি সিনেমা।
সিনেমাটি ইরানি ভাষায় তাই উপশিরোনামা থাকা দরকার।

সকুট



রঞ্জনা গুহ
মেক্সিকো সিটি
মেক্সিকো

 

ছবিঃ
ফিরোজানফিল্মস্‌

এই লেখকের অন্যান্য রচনা