ছোটদের মনের মত ওয়েব পত্রিকা

'অর্চি' একটি ছোট্ট বেসরকারী সমাজসেবী সংস্থা। দক্ষিণ কলকাতার একটি মেয়েদের স্কুলের ছাত্রীদের পড়াশোনা, হাতের কাজ শেখা- এই সমস্ত বিষয়ে সাহায্য করে অর্চি। গত ডিসেম্বর মাসের দিন দশেক ধরে চলেছিল অর্চির বাৎসরিক কর্মসূচী। সেই কর্মসূচীর অঙ্গ হিসাবে স্কুলের মেয়েদের সাথে গল্প বলার আসরে যোগ দিয়েছিল ইচ্ছামতী।

এই স্কুলে যে সমস্ত মেয়েরা পড়ে, তাদের সবারই পরিবারের আর্থিক অবস্থা খুবই সঙ্গীন। নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের এই মেয়েরা ঘরের কাজকর্ম সামলে রোজ নিয়ম করে স্কুলেও আসতে পারে না। কিন্তু তার জন্য তাদের কল্পণার ঘুড়ির উড়ানে কোনই টান পড়েনি। পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীর প্রায় চল্লিশ জন ছাত্রী সেদিন দুপুরে উপস্থিত ছিল স্কুলেরই এক বড় ক্লাসরুমে। ব্যবস্থাপনা খুব বেশি ছিল না, কিন্তু তার জন্য উৎসাহের কোন ঘাটতি ছিল না।

ইচ্ছামতীর ভান্ডার থেকে আমরা বেছে নিয়েছিলাম দুটি গল্প । প্রথমটি ছিল শ্রী তাপস মৌলিকের লেখা "বোকা বাঘ আর চালাক গরু" । অন্য গল্পটি ছিল মেক্সিকোর রূপকথা "ভালুক রাজকুমার ও নিন্‌ফার গল্প"। অনেক রঙিন ছবিতে ভরা এই গল্পদুটি পড়তে এবং গল্প বলা শুনতে সবারি বেশ ভাল লেগেছিল।

তারপরে আমরা শুরু করেছিলাম মুখে মুখে গল্প তৈরি করার আসর। আর তখনই প্রমাণ পেলাম, এদের মধ্যে কয়েকজন মেয়ে কত ভাল করে গল্প বলতে পারে। মুখে মুখে দিব্যি তৈরি হয়ে গেছিল সকলের মনের মত একটি গল্প। এই মেয়েদের মধ্যে অনেকেই আবার খুব ভাল ছবি আঁকে বা হাতের কাজ করে। চলে আসার আগে ইচ্ছামতীকে তারা নিজেদের হাতে তৈরি দুটি উপহার দিয়েছিল।

undefined

আরও পড়তে পারো...

ফেসবুকে ইচ্ছামতীর বন্ধুরা