ছোটদের মনের মত ওয়েব পত্রিকা

কদিন আগে বিশ্বকর্মা টাইম মেসিন চড়ে
নামল এসে গড়ের মাঠে উনিশ তারিখ ভোরে;
সাথে হরেক যন্ত্রপাতি কোনটা কখন লাগে,
বলল বাবা- সাইকেলটা ঠিক করে দে আগে!
মা বলল সেদিন থেকে ভাবছি ডাকি কাকে,
ঠাকুর ঘরের ছিটকিনিটা দেখিস তো এক ফাঁকে;
রাঙ্গা কাকু আসল নিয়ে সদ্য কেনা ঘড়ি-
এর মধ্যে বিগড়ে গেল, এখন যে কি করি!
আসল দাদু সঙ্গে ছেঁড়া প্রাচীন দিনের ছাতা,
ফুটাফাটা ঠিক করে দিস বিশ্ব পরিত্রাতা;
কোত্থেকে কি হাজির দাদা কি বোর্ড মাউস হাতে,
ই-মেল কেন কাজ করেনা জানেন গভীর রাতে?
ফোকলা দাঁতে কৌটো নিয়ে আসল মায়ের মামি,
ঢাকনা খোলার প্রযুক্তিটা শিখবো দেখিস আমি;
ফুল কাকিমা বলেন টিভির নিত্যদিনের ব্যারাম,
ভুলেই গেছি সাঁঝের বেলা টিভি দ্যাখার আরাম;
বলল দিদি কারন ছাড়া এ-সি র গণ্ডগোলে,
গরম ভারী, ঠিক হবে কি খানিক সময় পেলে?
দৌড়ে এসে চিন্তা কাকু বলেন গাড়ির ব্রেকে,
হরেক কিসিম শব্দ শুনি হটাত থেকে থেকে;
নাড়িয়ে মাথা বলল মামা জানেন মেকানিক্যাল?
কেবল ফাঁকি মুখের বুলি জানি একাল সেকাল!
রাঙ্গা দাদু লঙ্কা পেঁয়াজ খাচ্ছিল ঝালমুড়ি,
ডানপিটে সে ভাইয়ের হাতে দেখে লাটাই ঘুড়ি-
বলল চল ডাকছে আকাশ আজকে পূজোর দিনে,
হাজার ঘুড়ি উড়ছে দেখি, মেঘ ভাসে আশ্বিনে।।


ছবিঃত্রিপর্ণা মাইতি

লেখক পরিচিতি

আশুতোষ ভট্টাচার্য্যি

আশুতোষ ভট্টাচার্য্যি নিয়মিত ছোটদের এবং বড়দের বিভিন্ন পত্রিকায় লেখালিখি করেন।
নয় পেরিয়ে দশে পা
undefined

আরো পড়তে পার...

ফেসবুকে ইচ্ছামতীর বন্ধুরা